ধন্যবাদ সাউথ আফ্রিকাকে! পাকিস্তান সেমিফাইনালের যোগ্য ছিল না, নেদারল্যান্ডস জেতার খুশিতে কি বললেন শোয়েব আখতার

এবারের বিশ্বকাপে নেদারল্যান্ড বড় অঘটন ঘটিয়েছে। আর সাউথ আফ্রিকা এই অঘটনের শিকার হয়েছে। এবারের বিশ্বকাপ থেকে সাউথ আফ্রিকাকে নেদারল্যান্ডসের (Netherlands Vs South Africa)জন্যই বিদায়ের পথ দেখতে হয়েছে। এই ম্যাচে বড় লাভবান হয়েছে ভারতের পাশাপাশি পাকিস্তান দল। আবারও আইসিসি টুর্নামেন্টে টেম্বা বাভুমারা চাপ সামলাতে পারল না। এবার পাকিস্তানের ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতার(Shoaib Akhtar) বড় বয়ান দিলেন সাউথ আফ্রিকাকে নিয়ে।

এক দিকে সাউথ আফ্রিকার হার, ভারতের সেমিফাইনাল কোয়ালিফাই নিশ্চিত হয়েছে জিম্বাবুয়ের ম্যাচের আগেই। জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে ভারত ম্যাচ হেরে গেলেও নিশ্চিত হয়েছিল কোয়ালিফাই। অন্যদিকে বাংলাদেশকে হারিয়ে পাকিস্তান নিজেদের শেষ চারে জায়গা করে নিতে সক্ষম হয়েছে। সাউথ আফ্রিকার হার নেদারল্যান্ডসের কাছে এটি একটি চমকপ্রদ ব্যাপার। যাইহোক শোয়েব আক্তার পাকিস্তান শেষ সাড়ে জায়গা করে নেওয়া খুশিতে চোকার বলে সাউথ আফ্রিকাকে বর্ণনা করেছেন।

দক্ষিণ আফ্রিকা নেদারল্যান্ডসের কাছে হারার পর একটি ভিডিওতে শোয়েব আখতার টুইট করে বললেন,“দক্ষিণ আফ্রিকা, তোমরা অনেক বড় চোকার। আপনারা পাকিস্তানকে সুযোগ করে দিয়েছেন। ইতিমধ্যেই ভারত সেমিফাইনালে পৌঁছেছে। জিম্বাবুয়ের কাছে পাকিস্তান হারার পর সেমিফাইনালে ওঠার যোগ্য ছিল না। কিন্তু এখন পাকিস্তান সুযোগ পেয়েছে, নতুন জীবনদান পেয়েছে।”

তিনি আরো বললেন, “দক্ষিণ আফ্রিকাকে ধন্যবাদ। আমাদের অনেক উপকার হয়েছে। তিনি পাকিস্তানের জয় কামনা করে বলেন এইভাবেই এগিয়ে যাক পাকিস্তানের জয়।”

এই দিনের ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে নেদারল্যান্ডস ১৫৮ রান করেন ২০ ওভারে। দক্ষিণ আফ্রিকা জবাবে ব্যাট করতে নেমে তাদের ইনিংস ১৪৫ রানেই শেষ করে দেয়। প্রথমের দিকে সাউথ আফ্রিকা ভালো করলেও ব্যর্থ হয়েছেন গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে। অন্যদিকে পাকিস্তান বাংলাদেশকে(Bangladesh Vs Pakistan) হারিয়ে শেষ চারে পৌঁছেছে। বাংলাদেশ এই ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করে ২০ ওভারে ১২৭ রান তোলেন। পাকিস্তান জবাবে ব্যাট করতে নেমে ম্যাচ জিতে নেয় ৫ উইকেট হাতে রেখে।

নিউজিল্যান্ড, ইংল্যান্ড, ভারত ও পাকিস্তান এই চারটি দল পৌঁছেছে এই টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে। যার মধ্যে পাকিস্তান নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে খেলবে এবং ভারত খেলবে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে। এবারের বিশ্বকাপে (T-20 World Cup 2022)কারা শেষ হাসিটা হাসে সেটা সময়ের অপেক্ষা।