ছেলেবেলায় সচিনের মতো খেলার স্বপ্ন দেখলেও, পরে বুঝেছিলাম সেটা সম্ভব নয়- অকপট এম এস ধোনি

ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন কিংবদন্তি ক্রিকেট প্লেয়ার মহেন্দ্র সিং ধোনি সম্প্রতি জানিয়েছেন যে, তার ইচ্ছা ছিল কিংবদন্তি ক্রিকেটার সচিন তেন্ডুলকরের মতো ক্রিকেট খেলার। কারণ ক্রিকেটে তাঁর রোল মডেল ছিলেন সচিনই। তিনি বড় হয়ে তাঁর মতোই ব্যাট করতে চেয়েছিলেন। ভারতীয় দলে হয়ে ধোনি সচিনের সঙ্গে মোট ৭০টি ও ১১৭টি ওয়ানডে এবং একটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন।

ভারতের প্রাক্তন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মহেন্দ্র সিং ধোনি হলেন বিশ্বের প্রথম অধিনায়ক, যাঁর নেতৃত্বে ভারত ক্রিকেটে তিনটি বড় আইসিসি শিরোপা জিতেছে। ডানহাতি এই প্রাক্তন কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান প্রকাশ করেছেন যে তিনিও অন্যান্য বাচ্চাদের মতো বড় হয়ে সচিন তেন্ডুলকরের মতো মাঠে ব্যাট করতে চেয়েছিলেন।

ধোনির নেতৃত্বে ভারত ২০০৭ সালে সাউথ আফ্রিকা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, ২০১১ সালে ভারতে ওডিআই বিশ্বকাপ এবং ২০১৩ সালে ইংল্যান্ডে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জিতেছিল। ২০২০ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার পর, মহেন্দ্র সিং ধোনিকে গত দুই আইপিএলে চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে অধিনায়কত্ব করতে দেখা যায় । কিন্তু ২০২২ আইপিএলের শেষের দিকে চেন্নাই সুপার কিংস এর হয়ে রবীন্দ্র জাদেজার নেতৃত্ব ব্যর্থ হলে, ধোনি ফের দলকে নেতৃত্ব দেন।

সচিনের মতো ব্যাট করার স্বপ্ন

বেঙ্গালুরুতে চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে এমএস ধোনি গ্লোব্যাল স্কুলের উদ্বোধনে গিয়েছিলেন। সেখানে শিশুদের প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে এমএস বলেন, ‘আমার ক্রিকেটের রোল মডেল বরাবরই ছিলেন সচিন তেন্ডুলকর। আমি যখন তোমাদের মতো ছিলাম, তখন থেকে সচিন তেন্ডুলকরের খেলা দেখতাম, আমিও ওনার মতো খেলতে চাইতাম। কিন্তু পরে বুঝলাম, আমি ওনার মতো খেলতে পারব না। যদিও ওনি সব সময়ে আমার হৃদয়ে ছিল। আমি সব সময়ে ওনার মতো খেলার স্বপ্ন দেখতাম।’

টেনিস কোর্টে দেখা হয়েছিল সচিন-ধোনির

সম্প্রতি কালে সচিন তেন্ডুলকরের সঙ্গে একটি বিজ্ঞাপনের শুটিংয়ের সময় টেনিস কোর্টে দেখা গিয়েছিল এম এস ধোনিকে। ২০২৩ সালের আইপিএলে চেন্নাই সুপার কিংস এর অধিনায়ক হিসেবে আবারও মাঠে দেখা যাবে ধোনিকে। অন্যদিকে, মাস্টার ব্লাস্টারকে সম্প্রতি রায়পুরে রোড সেফটি ওয়ার্ল্ড সিরিজে ইন্ডিয়া কিংবদন্তিদের অধিনায়কত্ব করতে দেখা গিয়েছে। এমন কী সচিনের নেতৃত্বে ভারতীয় লেজেন্ড শ্রীলঙ্কা লিজেন্ডসকে হারিয়ে রোড সেফটি শিরোপা জিতেছে।