লেটেস্ট খবরসাফল্যের খবর শিক্ষার খবরঅফবিটটেক নিউজ

দলে টিকে থাকতে চালাচ্ছেন কঠোর পরিশ্রম, চোখ বন্ধ করেই অনুশীলন দীনেশ কার্তিকের !!

WhatsApp Group   Join Now ২০২২ এ অস্ট্রেলিয়ায় মাটিতে টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মঞ্চ বেশ জমে উঠেছে, গ্রুপ স্তরে দুই ম্যাচ জিতে গ্রুপের শীর্ষে আছে ভারতীয় ...

Published on:

WhatsApp Group   Join Now

২০২২ এ অস্ট্রেলিয়ায় মাটিতে টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মঞ্চ বেশ জমে উঠেছে, গ্রুপ স্তরে দুই ম্যাচ জিতে গ্রুপের শীর্ষে আছে ভারতীয় দল। তৃতীয় ম্যাচে ভারত মুখোমুখি হবে দক্ষিণ আফ্রিকার, পার্থ ক্রিকেট গ্রাউন্ড থেকে সরাসরি খেলাটি দেখা যাবে ভারতীয় সময় ৪ টে বেজে ৩০ মিনিটে। গ্রুপে শীর্ষে থাকা ভারতীয় দলের কাছে বড় চ্যালেঞ্জের হয়ে উঠবে এই ম্যাচটি। এই ম্যাচটি ভারত জিততে পারলে সরাসরি কোয়ালিফাই করে যাবে সেমিফাইনাল এর জন্য। ভারতের পরবর্তী খেলা গুলি আছে বাংলাদেশ এবং জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে।

দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারানোর জন্য ভারতীয় দলের  ফিনিশার ব্যাটসম্যান তথা উইকেট রক্ষক দীনেশ কার্তিক কঠোর পরিশ্রম করছে, কারণ নেদারল্যান্ডসের বিরুদ্ধে তার দ্বারা একটি স্টাম্পিং মিস হয়। সেই ভুল যেন আর না হয় তার জন্যই করে চলেছেন কঠোর পরিশ্রম। দীনেশ কার্তিক ২০০৭ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ভারতীয় টি-টোয়েন্টি দলের সদস্য ছিলেন। দীনেশ কার্তিকের বিগত কিছু মাসের পারফরমেন্সের ভিত্তিতেই ২০২২ এর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারতীয় দলে সুযোগ পেয়েছেন। বিশ্বকাপের মঞ্চে ভারতের হয়ে তিনি একজন ফিনিশারের ভূমিকা পালন করবেন। ঘরের মাঠে  দীনেশ কার্তিক কে অস্ট্রেলিয়া এবং দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে দুটি ম্যাচ দুর্দান্ত ফিনিশ করতে দেখা যায়, যার ফলস্বরূপ ঋষভ পন্থের আগে দলে সুযোগ পেয়েছেন দীনেশ কার্তিক।

দিনেশ কার্তিক তার রিয়াকসন টাইম ঠিক করার জন্য দুটি নির্দিষ্ট প্রশিক্ষণ করেছেন। যেমন, প্রথমে একটি তোয়ালে লাগিয়ে কিপিং অনুশীলন করছেন, ফিল্ডিং কোচ তাকে ক্যাচ ছুড়ছিলেন যেটি  তোয়ালেতে লেগে দিক পরিবর্তন করছিল। এখানে তোয়ালেটি একটি ব্যাটারের ভূমিকা পালন করে, যে বলটাকে ঢেকে দেবে, একেবারে শেষ মুহূর্তে বল‌ দেখতে পাবে কিপার। দ্বিতীয়ভাগে তোয়ালে সরিয়ে সেখানে কিট ব্যাগ বসিয়ে অনুশীলন করেন, শেষে তিনি রবার ব্যাট দিয়ে অনুশীলন করেন, এই ব্যাটের  কানা খুব অমসৃণ। যেখানে বল ভিতরের দিকের কানায় লাগুক কি বাইরের দিকের কানায় বিভিন্ন দিকে তা ছিটকে যেতে পারে। ফলে দীনেশের রিফ্লেক্সের উন্নতি হবে।

দীনেশ কার্তিককে পার্থের উইকেটের জন্য সচেতন থাকতে হবে কারণ অন্যান্য পিচের তুলনায় এই পিচে অতিরিক্ত বাউন্স দেখা যায়। যার ফলে দিনেশ কার্তিক নিজের কিপিং এর প্রস্তুতি চালিয়ে যাচ্ছেন। বিশ্বকাপে ভারত যে দুটি ম্যাচ খেলেছে সে দুটি ম্যাচেই উইকেট কিপার ছিলেন দীনেশ কার্তিক। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে তিনি ব্যাটিং করার সুযোগ পেয়েছিলেন কিন্তু সেই সুযোগের সৎ ব্যবহার করতে পারেননি। চাপের মুখে তিনি নিজের উইকেট হারিয়ে ফেলে। যার পরিণামে ভারতীয় দল অনেক সমস্যার সম্মুখীন হয়েছিল।

কার্তিক বাদে, ঋষভ পন্থকেও বেশ কঠোর পরিশ্রম করতে দেখা গেল, তিনি ব্যাটিং প্র্যাকটিসে সব বল মাঠের বাইরে পাঠাচ্ছিলেন। যদিও ২০২২ এর বিশ্বকাপের মঞ্চে তার এখনো দলের হয়ে খেলার সুযোগ মেলেনি। অন্যদিকে আত্মবিশ্বাসের অভাব দেখা যাচ্ছে লোকেশ রাহুলের মধ্যে , তবুও ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট রাহুলকে কোন মতেই দল থেকে বাদ দিতে নারাজ। দিনেশ কার্তিককে ভারতীয় কিপার হিসেবে বেছে নেওয়ার পর থেকে পন্থ অপেক্ষায় আছে, কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে কার্তিক পারফরম্যান্স করতে না পারলে সেটি বদলে যেতে পারে।

About Author