MS Dhoni : রাহুল-রোহিতের ক্ষমতা খর্ব! ধোনিকে বড় পদে আনছে BCCI !!

যখনই ভারতীয় ক্রিকেট দল বিপাকে পড়ে তখন উঠে আসে মহেন্দ্র সিং ধোনির নাম। অধিনায়ক হিসেবে যে উচ্চতা তিনি তৈরি করেছিলেন কেউ তা স্পর্শ করতে পারেনি। ফলে ধোনির পর দলের দায়িত্বে বিরাট কোহলি বা রোহিত শর্মা আসলেও বারবার ধোনির নাম উঠে এসেছে। রোহিতদের সদ্য সমাপ্ত বিশ্বকাপে ব্যর্থতার পর ধোনির নেতৃত্বের বারবার প্রসঙ্গ টানা হয়েছে। তিনি যেভাবে উইকেটের পিছন থেকে ম্যাচ ঘোরাতেন সেটা এখন আলোচ্য বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। ধোনিকে দলের দায়িত্ব দেওয়ার দাবি তুলছেন সমর্থকদের একাংশ। সেই দাবিতেই বিসিসিআই সম্ভবত মান্যতা দিতে চলেছে। দলের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে মহেন্দ্র সিং ধোনিকে নিয়ে আসতে চলেছে।

ধোনি ICC ইভেন্টে বরাবরই সফল। ধোনির নেতৃত্বে এসেছিল 2007 সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, 2011 সালের ওডিআই বিশ্বকাপ বা 2013 সালের চ্যাম্পিয়নস ট্রফি। ভারত তারপর থেকে আর কোনো আইসিসি টুর্নামেন্ট জেতেনি। আইপিএলে ধনী চারবার ট্রফি জিতেছেন সিএসকের অধিনায়ক হিসেবে। এবার ম্যানেজমেন্টেও বিসিসিআই ধোনির চ্যাম্পিয়ন্স লাকে ভরসা করতে চাইছে।

এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, অধিনায়ক হিসেবে তিন ফরম্যাটেই রাহুল দ্রাবিড়ের উপরে চাপ বাড়ছে। তার উপর থেকে চাপ কমাতে বিসিসিআই ধোনিকে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে দায়িত্ব দিতে চলেছে। ধোনির মেধাকে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে কাজে লাগাতে চাইছে। বিসিসিআইয়ের অ্যাপেক্স কাউন্সিলের বৈঠকে আগামী মাসে এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হতে চলেছে।

2021 সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারতীয় দলের মেইন্টর হিসেবে ধোনি কাজ করেছিলেন সেইবার বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন ভারত গ্রুপ স্তর থেকে ছিটকে যায়। মাত্র এক সপ্তাহ দলের সাথে থেকে তিনি সেভাবে গত বিশ্বকাপে কোন পরিবর্তন আনতে পারেননি। আগে থাকতেই বোর্ড ধোনিকে দায়িত্ব নিতে চলেছে। দুটো ভূমিকার জন্য তাকে ভাবা হচ্ছে, একটি হলো ডিরেক্টর অফ ক্রিকেট পদে আর অন্যটি টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের কোচ হিসাবে।

আইপিএল থেকে এখনো ধোনি অবসর নেননি। নিয়ম অনুযায়ী, কোচ বা তার সমতুল্য কোন পদে বসতে পারেননা কেউ প্লেয়ার থাকাকালীন। ফলে টি-টোয়েন্টির দায়িত্ব ধোনিকে দিতে হলে আইপিএল থেকে তাকে অবসর নিতে হবে। অন্যদিকে অতীতে একাধিকবার ধোনি ইঙ্গিত দিয়েছিলেন তার আইপিএলে 2023 সালেই শেষ মরসুম হতে চলেছে। ফলে আইপিএলের পর ক্রিকেট থেকে ধোনি অবসর নিলে কোন অসুবিধা নেই তাকে দলের দায়িত্ব দিতে।