গুরুতর আহত ঋষভ পন্থ, দিল্লি থেকে বাড়ি ফেরার পথে ভয়াবহ গাড়ি দুর্ঘটনায় ভারতীয় ক্রিকেটার

বাংলাদেশের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজ়ে খেলেছিলেন ঋষভ পন্থ। ঢাকা থেকে দিল্লি ফেরেন তিনি। সেখান থেকে উত্তরাখণ্ডে নিজের বাড়িতে ফিরছিলেন পন্থ। সেই সময় ডিভাইডারে ধাক্কা মারে তাঁর গাড়ি। মাথায় চোট লেগেছে ভারতীয় এই উইকেটরক্ষকের। পিঠেও একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

পন্থ নিজেই তাঁর গাড়িটি চালাচ্ছিলেন। দিল্লি-দেহরাদুন হাইওয়েতে রুরকির কাছে গাড়িটি ডিভাইডারে ধাক্কা মারে। এর পরেই গাড়িটিতে আগুন লেগে যায়। প্রাথমিক ভাবে পন্থকে হামাদপুর ঝালের কাছে একটি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। কিন্তু তাঁকে যেকোনও সময় দিল্লির কোনও হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। কী ভাবে দুর্ঘটনা ঘটল, গাড়িতে কী ভাবে আগুন লাগল, তা নিয়ে এখনও সরকারি ভাবে কিছু জানানো হয়নি।

পন্ত মাথায় চোট পেয়েছেন বলে খবর। তাঁর পিঠেও আঘাত লেগেছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া ছবিতে হাসপাতালের বেডে শুয়ে থাকা পন্তের মাথায় ব্যান্ডেজ দেখা যাচ্ছে। তাঁর পিঠেও ঘর্ষণজনীত আঘাত দেখা যাচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ার ছবিতে। দুর্ঘটনার পরেই পন্তের গাড়িতে আগুন লেগে যায়। গাড়িটি আগুনে পুড়ে গিয়েছে।

এসপি দেহাত স্বপন কিশোর জানিয়েছেন, ‘হরিস্বার জেলায় মাংলাউর ও নারসানের মাঝামাঝি জায়গায় ক্রিকেটার ঋষভ পন্তের গাড়ি দুর্ঘটনায় পড়ে। রুরকিক সিভিল হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসার পরে তাঁকে দেরাদুনের ম্যাক্স হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। দুর্ঘনাটি ঘটে মাংলাউর থানায় অন্তর্গত এলাকায় এনএইচ ৫৮-র উপরে।

এক সিনিয়র পুলিশ অফিসার এনডিটিভিকে জানিয়েছেন যে, গাড়িতে পন্ত একাই ছিলেন। ডিভাইডারে ধাক্কা লাগার পরেই পন্তের গাড়িতে আগুন লেগে যায়। উইন্ডস্ক্রিন গাড়ি থেকে বেরিয়ে আসেন পন্ত। তারকা ক্রিকেটার পায়ে চোট পেয়েছেন বলে প্রাথমিকভাবে জানা যাচ্ছে।