‘হারলে রক্ষে নেই…’, ভারতের ম্যাচের আগে বাবরদের হুঁশিয়ারি পাকিস্তান বোর্ড চেয়ারম্যানের

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের অষ্টমতম আসর শুরু হতে চলেছে অস্ট্রেলিয়ায় আগামী ১৬ই অক্টোবর ২০২২ থেকে। আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকারী প্রতিটি দল অস্ট্রেলিয়ায় পৌঁছে গিয়েছেন এবং তারা নিজ নিজ প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছেন।

প্রতিটি দল যেখানে প্র্যাকটিসের মধ্যে দিয়ে নিজেদের পারফরমেন্স ধরে রাখার চেষ্টা চালাচ্ছে এবং নিজেদের আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে তুলছে। অন্যদিকে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান রামিজ রাজা দলকে দিলেন সতর্কবাণী।পাকিস্তান টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট ফরম্যাটে বরাবরই একটি শক্তিশালী দল। বাবর আজমের নেতৃত্বে মোহাম্মদ রিজওয়ান এর ব্যাটিং ও শাহিন আফ্রিদির বোলিং এর জোরে পাকিস্তান ক্রিকেট দলটি আরও শক্তিশালী হয়েছে।

বর্তমান পাকিস্তান দলটি কোন বড় টুর্নামেন্টে জয় না করলেও যে কোন বড় দলকে খেলার মাঠে কড়া টক্কর দেয়। তবে শাহিন আফ্রিদির চোট লাগার জন্য বর্তমান দলের বোলিং ফর্মটা ও মিডিল অর্ডার ব্যাটসম্যান দের রান না পাওয়াটা হয়েছে একটু ছন্নছাড়ার কারণ। সম্প্রতি তারা ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজ হেরেছে ঘরের মাঠে ৪-৩ ব্যবধানে।

বিশ্বকাপের আগে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান রামিজ রাজা তাই তাদের এই পরিস্থিতি দেখে সতর্ক করলেন এবং ভালো খেলার নির্দেশ দিলেন।এইবার আসলে অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আগামী ২৩ শে অক্টোবর ভারত- পাকিস্তান এই দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দল মুখোমুখি হতে চলেছে। এই ম্যাচ দিয়ে শুরু দুই দলের বিশ্বকাপ যাত্রা। ভারত বনাম পাকিস্তানের ম্যাচকে নিয়ে উত্তেজনার পারদ ঊর্ধ্বমুখী। যদিও দুই দেশের রাজনৈতিক কারণের জন্য ভারত-পাকিস্তান দৈপাক্ষিক সিরিজ দেখা যায় না।

এই দুই দল মুখোমুখি হয় এশিয়া কাপে নয়তো আইসিসির কোন টুর্নামেন্টে। এর আগের বছর ২০২১ শে ভারত-পাকিস্তান মুখোমুখি হয়েছিল দুবাইতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে তারপর ২০২২ এর এশিয়া কাপে।আগের বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ২০২১ এর প্রথম ম্যাচে ভারতকে পাকিস্তান ১০ উইকেট হারিয়ে দিয়েছিল। যেখানে ভারতীয় দলের বিরাট কোহলি ক্যাপ্টেন ছিলেন।

ভারতকে লজ্জা জনক ভাবে হারতে হয়। এই ম্যাচের পর বিরাট কোহলি ক্যাপ্টেন্সি ছেড়ে দেয়। তারপর ভারতীয় দলের ক্যাপ্টেন হয় রোহিত শর্মা। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান রামিজ রাজার মতে, রোহিতের নেতৃত্বে ভারত আরও শক্তিশালী হয়েছে। এদিকে পাকিস্তান ক্রিকেটাররা ছন্দহারিছে।

এক সাক্ষাৎকারে পাকিস্তান দলের বর্তমান অবস্থা দেখে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান রামিজ রাজা বলেন, “আমি দলকে বলেছি আমাদের জিততে হবে। সমর্থকরা চায় আমরা সব ম্যাচ যেন জিতি, ম্যাচে হার আমরা নিতে পারবো না। যখন দল পরাজিত হয় তখন আমার মনে হয় সমর্থকরা যেন তেড়ে আসছে। হারের জন্য বাড়ির লোকও ছেড়ে দেয় না। কারণ ম্যাচ জয় পাকিস্তানের সমর্থকদের মুখে হাসি ফোটায়। দেশের মনোবল বাড়ায়, আর সেটা যদি ভারতের বিরুদ্ধে হয় তাহলে তো কোনো কথাই নয়।”