“বাচ্চাদের মতো কান্না করো না”, টিম ইন্ডিয়া বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাওয়ায় এই সাংবাদিককে খোঁচা দিলেন মোহাম্মদ আমির !!

দুই এশিয়ান টিম এই বিশ্বকাপের আসরে বিশ্বকাপ পাওয়ার যোগ্য ছিল, প্রথম দল হলো ভারত এবং দ্বিতীয় দল হল পাকিস্তান, নক আউট স্টেজে এই দুই দল হেরে বিশ্বকাপ থেকে দূরে চলে যায়, পাকিস্তান দল প্রথম সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে বিশ্বকাপের ফাইনালে প্রবেশ করে, কিন্তু অন্যদিকে ভারতীয় দল ১০ উইকেটে লজ্জা জনক ভাবে হেরে বাড়ি ফিরে আসে। তবে পাকিস্তানের জার্নালিস্টরা ভারতের পরাজয়ের পর ভারতীয় দলকে নিয়ে কুকথা বলতে ছাড়েনি, ভারতের জার্নালিস্টরাও জবাব দিতে কম যায় না, ভারতের জার্নালিস্ট রুবিকা লিয়াকাত এবং পাকিস্তানী ওপেনার মোহাম্মদ রিজওয়ানের একটি ভিডিও সবার সামনে এনেছেন এবং মন্তব্য করেছেন যা দেখে একেবারে হকচকিয়ে গিয়েছেন মোহাম্মদ আমির।

রুবিকা এই ভিডিওতে বোঝাতে চাইছেন ইসলাম ধর্মকে পাকিস্তান দল কিভাবে সারা বিশ্বে প্রচার করতে চাইছে, তিনি এই ধর্ম প্রচারের জন্য পাকিস্তান দলের ওপরে আর মোহাম্মদ রিজওয়ানকে দায়ী করেছেন, কারণ একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে ক্রিকেটের আলাপ আলোচনার মধ্যে কিছু ধর্মীয় জ্ঞান দিচ্ছেন রিজওয়ান, তাছাড়া ইসলামিক ধর্মের বিভিন্ন রীতিনীতি মাঠের মধ্যেই রিজওয়ান পালন করে থাকেন।

মহম্মদ রিজওয়ানকে নিয়ে ভারতীয় জার্নালিস্ট রুবিকা মন্তব্য করে বলেছেন, “শতরান বা অর্ধশতরান করার পরে রিজওয়ান সর্বদাই তার ধার্মিক কাজ গুলি করে থাকেন, ধর্মান্ধ চিন্তাধারার ভিত্তিতে পাকিস্তানের মতো একটি দেশ অস্তিত্ব লাভ করেছে। মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ পাকিস্তানে যে ধর্মান্ধতার বীজ বপন করেছিলেন তা পাকিস্তান এখনও কাটছে। মজলিস চাপিয়ে দেওয়া মাওলানাদের কাজ, খেলোয়াড়দের নয়।” রুবিকার পেশ করা ভিডিওতে দেখা গিয়েছিল মাঠের মধ্যে রিজওয়ানকে নামাজ পড়তে ও ওয়াকার উইনিস সমর্থন জানিয়ে বলেছিলেন,“এতজন হিন্দুর মধ্যে নামাজ পড়াটা গর্বের বিষয়।”

মোহাম্মদ আমির রুবিকার এই ধরনের কথা মেনে নেননি, এই সম্বন্ধে তিনি প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বলেছেন, “রিজওয়ান খুবই ভালো মানুষ, তিনি আমাদের থেকেও একজন ভালো মানুষ। কেউ যদি তার পেশা ক্রিকেটে থেকে ধর্মকে আগে রাখে তাহলে সেটা কোন ভুল নয়, বাচ্চা ছেলে (ভারত) তোমরা বিশ্বকাপের বাইরে চলে গিয়েছো কান্নাকাটি করো না।”