কেকেআরে আরও বাঙালি ক্রিকেটার চাই !, সিএবি প্রেসিডেন্ট হয়েই দাবি জানালেন স্নেহাসিস গাঙ্গুলি !!

ক্রিকেটপ্রেমীদের বহুদিনের আক্ষেপ, আইপিএলে কেকেআর দলে বাঙালি ক্রিকেটারদের দেখা মেলে না। অথচ অনেক বাঙালি ক্রিকেটার অন্যান্য ফ্র্যাঞ্চাইজিদের হয়ে যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। সিএবি প্রেসিডেন্ট অভিষেক ডালমিয়া এই প্রসঙ্গে দাবি করেছেন, আইপিএলের পুরনো নিয়ম ফিরিয়ে আনা উচিত, বাংলার ক্রিকেটাররা কেকেআরের হয়েই খেলতে পারবে।

আইপিএলের প্রথম দিকে বাঙালিরা কেকেআরের হয়ে খেলতেন। শাহরুখ খানের দলে সৌরভ গঙ্গুলি থেকে শুরু করে ঋদ্ধিমান সাহা সকলেই খেলেছেন। কেকেআরের হয়ে আইপিএল খেলেছেন মহম্মদ শামি, শ্রীবৎস গোস্বামীও। কিন্তু দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে কেকেআর তাদের দলে কোন বাঙালি প্লেয়ার খেলাচ্ছেন না। কেকেআর আবার সেই সব দলের প্রতি উদাসীন যারা বাঙ্গালীদের প্লেয়ারদের কিনছেন। সিএবি প্রেসিডেন্ট এই ধারা বদলাতে চান।

32 টি স্কুল নিয়ে আয়োজিত একটি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল দেখতে গিয়েছিলেন অভিষেক ডালমিয়া। সেখানেই তিনি জানিয়েছেন, “বাঙালি প্লেয়ারদের কেকেআরের হয়ে খেলতে দেখলে ভাল লাগে। আইপিএলের পুরনো ‘ক্যাচমেন্ট এরিয়া নীতি’ ফিরিয়ে আনতে অনুরোধ জানিয়েছি বিসিসিআইকে।” ক্যাচমেন্ট এরিয়া নীতি চালু ছিল আইপিএলের শুরুর দিকে। চিনি নীতি অনুযায়ী প্রত্যেকটি ফ্র্যাঞ্চাইজিদের রাজ্য থেকে কমপক্ষে চারটি প্লেয়ার খেলাতে হবে। কিন্তু পরবর্তীকালে বাতিল করা হয় নিয়মটি।

Img 20221103 010602, , কেকেআরে আরও বাঙালি ক্রিকেটার চাই !, সিএবি প্রেসিডেন্ট হয়েই দাবি জানালেন স্নেহাসিস গাঙ্গুলি !!
Image:

তিনি যে টুর্নামেন্টের ফাইনাল দেখতে গিয়েছিলেন, সেই টুর্নামেন্টের প্রধান স্পন্সার হলো কেকেআর। অভিষেক ডালমিয়া বলেছেন, “আশা করি তরুণ নাইটরা উঠে আসবে এই ধরনের টুর্নামেন্ট থেকে। উঠতি ক্রিকেটারদের উন্নতির জন্যই কেকেআরের দেওয়া অর্থ ব্যবহার করা হবে। প্রত্যেক স্তর থেকেই যেন ক্রিকেটারেরা উঠে আসতে পারে, সেই কারণেই এমন টুর্নামেন্টের দিকে নজর রাখা হয়।” সম্প্রতি সমাপ্ত হওয়া এ বছরের আইপিএল টুর্নামেন্টে মোট 6 জন বাঙালি ক্রিকেটার খেলেছিলেন।