আইপিএলে এক মৌসুমে সর্বোচ্চ বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন এই ৪ ব্যাটসম্যান, তালিকায় দুই ভারতীয় 

আইপিএল মানেই ব্যাটসম্যানদের চার-ছক্কার বৃষ্টিপাত, যেখানে আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করে তারা দলের স্কোরকে এগিয়ে রাখতে সাহায্য করেন। বিশেষ করে ওপেনাররা পাওয়ার প্লেতে অনেক বেশি বাউন্ডারি হাঁকানোর সুযোগ পান। এই প্রতিবেদনে আইপিএলের এমন ৪ জন খেলোয়াড়ের কথা বলা হয়েছে যারা কোনও একটি মরসুমে রেকর্ড করেছেন সর্বোচ্চ বাউন্ডারি হাঁকানোর।

১) ডেভিড ওয়ার্নার: ৮৮টি

২০১৬ সালে ডেভিড ওয়ার্নারের নেতৃত্বে প্রথমবার আইপিএল শিরোপা জিতেছিল সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। তিনি ওই টুর্নামেন্ট জুড়ে তার ক্যারিয়ারের সেরা ফর্মে ছিলেন। ওয়ার্নার ১৭ ম্যাচে ৯টি হাফসেঞ্চুরি সহ মোট ৮৪৮ রান করেছিলেন। তার স্ট্রাইক রেট ছিল অসাধারণ ১৫১.৪২ এবং তার ব্যাট থেকে এসেছে ৮৮টি বাউন্ডারি, যা আইপিএলের ইতিহাসে সর্বোচ্চ।

২) শচীন টেন্ডুলকার: ৮৬টি

দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন শচীন টেন্ডুলকার, যিনি ২০১০ সালে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে ১৫ ম্যাচে দুর্দান্ত ৪৭.৫৩ ব্যাটিং গড় নিয়ে মোট ৬১৮ রান করেছিলেন। যেখানে ৮৬টি বাউন্ডারি তার ব্যাট থেকে আসে। এই মরসুমে অরেঞ্জ ক্যাপ জয়ী হন শচীন টেন্ডুলকার। সেবার ফাইনালে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স উঠলেও রানার্সআপ হয়েছিল।

৩) জস বাটলার: ৮৩টি

সদ্যসমাপ্ত আইপিএল ২০২২-এ পুরো টুর্ণামেন্ট জুড়ে জস বাটলার দুর্দান্ত ফর্মে ছিলেন এবং আইপিএলের কোনও একটি মরসুমের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান করেন। অরেঞ্জ কাপ জয়ী জস বাটলার ১৭ ম্যাচে ৪টি দুর্দান্ত সেঞ্চুরিসহ ৮৬৩ রান করেছেন, যেখানে তার ব্যাট থেকে এসেছে মোট ৮৩টি বাউন্ডারি। ফাইনালের মঞ্চে রাজস্থান রয়্যালসকে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে তার অবদান সবচেয়ে বেশি ছিল।

৪) বিরাট কোহলি: ৮৩টি

২০১৬ সালটা এক রূপকথার ইতিহাস হয়ে আছে বিরাট কোহলির কাছে। তিনি আইপিএলেও অসাধারণ ফর্মে ছিলেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের পাশাপাশি এবং তার ব্যাটিংয়ের দক্ষতায় ফাইনালে নিয়ে গিয়েছিলেন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুকে। বিরাট কোহলি ১৬ ম্যাচে ৮১ গড়ে ৯৭৩ রান করেন, যার মধ্যে ছিল ৪টি দুর্দান্ত সেঞ্চুরি ও তার ব্যাট থেকে আসে মোট ৮৩টি বাউন্ডারি। এটি ছিল কোনও একটি আইপিএল মরসুমের সর্বোচ্চ রান, যা আজও কেউ ভাঙতে পারেনি