Saumya Sharma: শ্রবণ ক্ষমতা হারিয়েও UPSC-তে বাজিমাত, প্রথমবারের চেষ্টাতে IAS অফিসার সৌম্যা শর্মা

Saumya Sharma: অনেকেরই জীবনের স্বপ্ন থাকে আইএএস অফিসার হওয়া।তবে এই স্বপ্নকে বাস্তবে পরিণত করা প্রচন্ড কঠিন কাজ। এই IAS হওয়ার জন্য উত্তীর্ন হতে হয় দেশের সবথেকে কঠিন পরীক্ষা UPSC বা ইউনিয়ন পাবলিক সার্ভিস কমিশন। আজকে আমরা এই প্রতিবেদনে এমন এক জন আইএএস অফিসারের জীবন সংগ্রামের কাহিনী আপনাদের জানাব যার শারীরিক সমস্যা থাকা সত্ত্বেও কঠোর ভাবে পরিশ্রম করে আজ একজন আই এ এস অফিসার হয়েছেন।

আমাদের দেশে অনেক প্রার্থীই ইন্ডিয়ান সিভিল সার্ভিস পরীক্ষা দিয়ে থাকেন। অনেকেই পরীক্ষায় অকৃতকার্য হওয়ার পর জীবনের স্বপ্নটিকে ভুলে জীবিকা নির্বাহ করার জন্য অন্য কোনো কাজে নিযুক্ত হয়ে যায়। কিন্তু আমাদের এই প্রতিবেদনের নায়িকা সৌম্যা শর্মা শ্রবণ সংক্রান্ত প্রতিবন্ধী হওয়া সত্ত্বেও এই কাজটি করেননি, তিনি তার স্বপ্নকে বাস্তবে পরিণত দিয়েছেন। সৌম্যা শর্মা(Saumya Sharma) হলেন একজন ডাক্তার দম্পতির কন্যা। সৌম্যা এক উচ্চ মধ্যবিত্ত পরিবারের জন্মগ্রহণ করেছিলেন যদিও তার জীবনযাত্রা আর পাঁচটা সাধারণ মেয়ের মত সহজ ছিল না ।

Saumya Sharma
Saumya Sharma

এর কারণ ছিল ছোট থেকেই তাঁর শ্রবণশক্তিতে সমস্যা। মাত্র ১১ বছর বয়স থেকেই তার শ্রবণশক্তির এই সমস্যা দেখা দেয়। অনেক জায়গায় অনেক চিকিৎসকের কাছে চিকিৎসা চালানোর পরও শেষ রক্ষা হয়নি। সৌম্যার যখন ১৬ বছর বয়স তখন তার সম্পূর্ণ শ্রবণশক্তি নষ্ট হয়ে যায়। শেষমেশ তাকে একটা কানে হিয়ারিং এইড ব্যবহার করতে হয়।

হিয়ারিং এইড ব্যবহার করেই সৌম্যা স্কুলের পড়াশুনা শেষ করেন, তারপর ন্যাশনাল ল স্কুলে ভর্তি হন স্নাতক কোর্সের জন্য। স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করার পর তিনি দিল্লি হাইকোর্টে আবেদন করেন যাতে শারীরিক দিক থেকে বিশেষভাবে সক্ষম কোটায় শ্রবণ প্রতিবন্ধকতাও যোগ করা হয়। সেইসময় হাইকোর্টের বিচারপতি তার প্রস্তাবে সাড়া দেন। দিল্লির হাইকোর্টে শ্রবণ প্রতিবন্ধীরা যাতে সংরক্ষিত স্থান পায় সেই ব্যবস্থাও করেন তিনি।

শ্রবণশক্তির দিক থেকে দূর্বল থাকলেও তার মনোবল ছিল অপরিসীম।এই মনোবল থেকেই মাত্র ২৩ বছর বয়সে তিনি আইএএস পরীক্ষা দিয়ে উত্তীর্ণ লাভ করেন। ২০১৭ সালে তিনি আইএএস অফিসার পদে অধিষ্ঠিত হন। তবে জানলে অবাক হবেন তিনি ইউপিএসসি পরীক্ষার জন্য কোনো কোচিং নেননি শ্রবণ প্রতিবন্ধীদের সংরক্ষিত কোটাও ব্যবহার করেননি তিনি,জেনারেল ক্যাটাগরির প্রার্থী হিসেবে নিজেই প্রস্তুতি নিয়ে এই সাফল্য পেয়েছেন।

আরও পড়ুন: UPSC: দু’বারের চেষ্টায় পেরোতে পারেননি প্রথম ধাপও, হাল ছাড়েননি তৃতীয় বারের পরীক্ষায় পাশ করে IPS হন আশনা চৌধুরী