রবীন্দ্রনাথ ঘোষ ওরফে “রবি ঘোষ” অতুলনীয় প্রতিভা থাকার সত্বেও তিনি তার প্রাপ্য সম্মান পান নি, আদালতের চাকরি ছেড়ে তিনি অভিনেতা হওয়ার পথ বাছেন

আজ আমরা কথা বলব টলিউডের একসময়ের নামজাদা অভিনেতার সম্পর্কে। তিনি হলেন রবীন্দ্রনাথ ঘোষ দস্তিদার। কি ঠিক চিনতে পারছেন না? আচ্ছা খোলসা করেই বলছি।

আমরা কথা বলছি রবি ঘোষের সম্পর্কে। কি এবার চেনা লাগছে তো? আসলে রবীন্দ্রনাথ ঘোষ দস্তিদার হল তাঁরই আসল নাম। রবি ঘোষ পর্দায় আসা মানেই দর্শকদের মুখে হাসি ফুটবেই। তার মধ্যে ছিল এক অসাধারণ অভিনয় গুনে।

আর তাঁর এই অভিনয় গুণের কারণেই স্বয়ং সত্যজিৎ রায় তাঁকে ‘বাঘা’ চরিত্রের জন্য বেছে নিয়েছিলেন। আর সত্যজিৎ রায়ের যে এক্ষেত্রে ভুল ছিলেন না তা তো আমরা পর্দাতে দেখেইছি। কিন্তু আজ আর রবি ঘোষ আমাদের সাথে নেই। ২৫ বছর হয়ে গেল তিনি ইহলোকের মায়া কাটিয়ে পরলোকে যাত্রা করেছে।

কিন্তু আজও তাঁর কাজ মানুষের মনে তাঁকে জীবিত রেখেছে। কিন্তু যেই সম্মানের ভাগীদার তিনি সেই সম্মান কি তিনি আদতেই পেয়েছেন? আজকের জেনারেশন কি তাঁকে ভালোভাবে চেনে? এইসব প্রশ্ন মনে এসেই যায়।

তিনি নিজের অভিনয় গুনে দর্শকদের কাছে ভালোবাসা পেলেও, নিজের জীবদ্দশায় খুব একটা সম্মান পাননি। অভিনয়ের জীবন শুরু করার আগে তিনি আদালতে চাকরি করতে। বেশ ভালই রোজগার হতো তাঁর সেই থেকে। কিন্তু অভিনয়ের প্রতি ভালোবাসা তাঁকে সেই চাকরি ছাড়তে বাধ্য করে।

আর তিনি যাত্রা শুরু করে দেন অনিশ্চিতের উদ্দেশ্যে। রবি ঘোষ কিন্তু প্রথম থেকেই অভিনেতা হতে চাননি। তিনি হতে চেয়েছিলেন একজন বডি বিল্ডার। আর সেই কারণে নিয়মিত শরীর চর্চা করতেন।

অবশ্য এর জন্য তাঁকে কোনদিন জিমে যেতে হয়নি। বাড়িতেই কসরত করতেন আর নিয়মিত মর্নিং ওয়াকে যেতেন। কিন্তু আর সিনিয়র আমাদের মধ্যে নেই। কিন্তু তাঁর কাজ আমাদের মাঝে তাঁকে বাঁচিয়ে রেখেছে।