লেটেস্ট খবরসাফল্যের খবর শিক্ষার খবরঅফবিটটেক নিউজ

PMAY: মন্ত্রিসভার সিদ্ধান্তে ৩ কোটি নতুন ঘর তৈরির আশ্বাস! বাংলার মানুষ কী পাবে এই সুবিধা? জানুন বিস্তারিত

Published on:

WhatsApp Group   Join Now

PMAY: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যিনি তার ৭১ জন মন্ত্রীর সাথে টানা তৃতীয় মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন, ১০ জুন তার মন্ত্রিসভায় নবনির্বাচিত মন্ত্রীদের পোর্টফোলিও বরাদ্দ করেছেন। প্রথম মন্ত্রিসভার বৈঠকে নেওয়া হয়েছিল সোমবার জাতীয় রাজধানী দিল্লিতে। মন্ত্রী পরিষদ হিসেবে ছিলেন রাজনাথ সিং, অমিত শাহ, নীতিন গড়করি, জেপি নাড্ডা, শিবরাজ সিং চৌহান, নির্মলা সীতারামন, এস জয়শঙ্কর; এমএল খট্টর, এইচডি কুমারস্বামী, পীযূষ গয়াল, ধর্মেন্দ্র প্রধান, জিতান রাম মাঞ্জি, রাজীব রঞ্জন সিং, সর্বানন্দ প্রমুখ ব্যক্তিরা।

Table of Contents

PMAY

NDA তথা বিজেপি সরকারের তৃতীয়বারের নবগঠিত কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা বিরাট সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার অধীনে গ্রামীণ ও শহরাঞ্চলে আরও ৩ কোটি বাড়ি তৈরির প্রস্তাব অনুমোদন করা হয়েছে।গত ১০ বছরে যোগ্য অর্থনৈতিকভাবে দরিদ্র পরিবারকে ৪.২১কোটি বাড়ি বরাদ্দ করেছে PMAY। এবার তারই সঙ্গে যুক্ত হবে আরও ৩ কোটি বাড়ি। PMO বিবৃতিতে বলা হয়েছে যে PMAY-এর অধীনে নির্মিত বাড়িগুলিতে টয়লেট, এলপিজি রান্নার গ্যাস সংযোগ, বিদ্যুৎ সংযোগ, কার্যকরী জলের ট্যাপ সংযোগ ইত্যাদির মতো মৌলিক সুবিধা দেওয়া হয়, যা অন্যান্য কেন্দ্রীয় ও রাজ্য প্রকল্পের অধীনে সরবরাহ করা হয়।
এছাড়াও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন সরকার গত বছর থেকে গ্রামীণ ও শহরাঞ্চলে আবাসন ঘাটতি কাটিয়ে উঠতে এই পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছে।প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি গত বছর স্বাধীনতা দিবসের ভাষণে ঘোষণা করেছিলেন যে সরকার শহরাঞ্চলে মধ্যবিত্ত পরিবারের জন্য গৃহঋণের সুদের উপর ত্রাণ দেওয়ার পরিকল্পনা করছে।

আরও পড়ুন:PM Awas Yojana 2024: কয়েকটি কাগজপত্র থাকলেই আবেদন করতে পারবেন পিএম আবাস যোজনায়! জেনে নিন আবেদন পদ্ধতি

লাল কেল্লার প্রাচীর থেকে ভাষণ দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, “মধ্যবিত্ত পরিবারগুলি নিজস্ব বাড়ির স্বপ্ন দেখে। আমরা আগামী কয়েক বছরের মধ্যে এটির জন্য একটি পরিকল্পনা নিয়ে আসছি। যে পরিবারের সদস্যরা শহরে থাকেন কিন্তু ভাড়া বাড়িতে থাকেন, বস্তিতে থাকেন, কলোনিতে থাকেন, তাঁরা এই সুবিধা পাবেন। ব্যাঙ্ক থেকে নেওয়া ঋণের সুদে ত্রাণ দিয়ে আমরা মানুষকে লক্ষ লক্ষ টাকা বাঁচাতে সাহায্য করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।উল্লেখ্য, এই বছরের ফেব্রুয়ারিতে ২০২৪-২৫ এর অন্তর্বর্তীকালীন বাজেট পেশ করার সময়, কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন প্রথমে গ্রামীণ এলাকায় দুই কোটি অতিরিক্ত বাড়ি নির্মাণের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছিলেন।

PMAY

এ ব্যাপারে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বঞ্চনার অভিযোগ এনেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। অভিষেক এও জানিয়েছেন, কেন্দ্র এখনই টাকা না দিলে রাজ্য সরকার নিজে থেকে সাড়ে ১১ লক্ষ বাড়ি বানানোর টাকা দেবে। সন্দেহ নেই তা কোষাগারের উপর চাপ বাড়াবে। কিন্তু এই ঘোষণা রাজনৈতিক ভাবে কেন্দ্র তথা বিজেপির উপর চাপও বটে।

About Author
Dikshita Gain

বিগত প্রায় ২ বছর ডিজিটাল মিডিয়ার কাজের সঙ্গে যুক্ত। যে কোনো ধরনের জেনারেল নিউজ লেখায় পারদর্শী।