আইপিএল না থাকলে হয়তো ভারতীয় দল এই ৫ জন ম্যাচজয়ী খেলোয়াড়কে পেত না !!

ভারতীয় দল আইপিএলের কল্যাণে অনেক দুর্দান্ত ক্রিকেটার পেয়েছে। এই বিশ্বের সেরা টি-টোয়েন্টি লিগে প্রতিবছর অনেক তরুণ খেলোয়াড়রা উদয় হয় এবং জাতীয় দলের হয়ে খেলার সুযোগ পান তাদের অসাধারণ পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে। তেমনি পাঁচজন খেলোয়াড়ের কথা এই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যাদেরকে আইপিএলের উপহার বলা যেতে পারে। দেখে নেওয়া যাক এবার:

১. কে এল রাহুল:

বর্তমান ভারতীয় ক্রিকেট দলে কে এল রাহুল একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য। তিনি তার ব্যাটিংয়ে ধারাবাহিকতা প্রতিটি ফরম্যাটে বজায় রেখেছেন। গত কয়েক আইপিএলে দুর্দান্ত ফর্মে ছিলেন তিনি এবং তার ব্যাট থেকে প্রত্যেক ম্যাচেই ম্যাচ জয়ী ইনিংস বেরিয়ে এসেছে। তিনি লখনৌ সুপার জায়ান্টসের হয়ে চলতি আইপিএলে অধিনায়কত্ব করেছেন এবং প্লে-অফে তার দলকে নিশ্চিত করেছেন। তিনি ভারতীয় দলে জায়গা করে নিয়েছিলেন আইপিএলে তার অসাধারণ পারফরম্যান্সের কারণে।

২. হার্দিক পান্ডিয়া:

ভারতীয় দলের একজন দুর্দান্ত খেলোয়াড় হার্দিক পান্ডিয়া তিনি সমান অবদান রাখেন ব্যাটিং বোলিং দুই বিভাগেই। বিগত কিছু সময় ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে চোটের কারণে তার পারফরম্যান্সের অবনতি ঘটেছে। তবে গুজরাট টাইটান্স দলকে চলতি আইপিএলে অসাধারণ নেতৃত্ব দেওয়ার পাশাপাশি তিনি দুর্দান্ত ফর্মে ফিরেছেন। তিনি প্রথম আইপিএল খেলা শুরু করেছিলেন ২০১৫ সালে এবং এরপর তিনি ভারতীয় দলে সহজে জায়গা করে নেন।

৩. রবীচন্দ্রন অশ্বিন:

রবীচন্দ্রন অশ্বিন আইপিএল থেকে জাতীয় দলে উঠে আসার সেই সকল খেলোয়াড়দের মধ্যে একজন। আইপিএল ক্যারিয়ার চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে শুরু করার পর জাতীয় দলের হয়ে সহজেই খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন। তিনি সকলকে মুগ্ধ করেছেন তার দুর্দান্ত স্পিন বোলিং দিয়ে। এছাড়াও ব্যাট হাতে তিনি যথেষ্ট দক্ষ। এই তারকা ক্রিকেটার রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে চলতি আইপিএলে খেলেছেন।

৪. জসপ্রীত বুমরাহ:

বর্তমানে বিশ্বের অন্যতম সেরা ফাস্ট বোলার হিসাবে জসপ্রীত বুমরাহকে বিবেচনা করা হয়। যেকোনো ব্যাটসম্যানের পক্ষে খুবই কঠিন তার বলের মোকাবিলা করা। তিনি পরিচিত তার বলের দুর্দান্ত মিশ্রণ এবং দুর্দান্ত ইয়র্কার ডেলিভারির জন্য এবং তিনি তাবড় তাবড় ব্যাটসম্যানদের বাউন্স ডেলিভারি দিয়ে সমস্যায় ফেলেছেন। ২০১৩ সালে বুমরাহ তার আইপিএল ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে। এরপর থেকে আর তাকে পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি।

৫. যুজবেন্দ্র চাহাল:

২০১১ সালে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স আইপিএলের যুজবেন্দ্র চাহালকে কিনেছিল। যদিও তিনি একটিও ম্যাচ খেলার সুযোগ পায়নি তার দুটি আইপিএল মরশুমে। এরপর একটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন ২০১৩ সালে এবং মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স সেই বছরই চ্যাম্পিয়ন হয়। এরপর তিনি খেলা শুরু করেন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর হয়ে। এরপর তিনি ধারাবাহিকভাবে আরসিবির হয়ে ভালো পারফর্ম করে জায়গা করে নেন ভারতীয় দলে। এই লেগ স্পিনার আজ ভারতীয় দলের সেরা স্পিনার।