লেটেস্ট খবরসাফল্যের খবর শিক্ষার খবরঅফবিটটেক নিউজ

Free Laptop Yojana: শিক্ষার্থীদের জন্য আরও একটি সুখবর! ট্যাবের পর এইবার ফ্রিতে ল্যাপটপ দিচ্ছে সরকার! কারা, কীভাবে পাবেন! জানুন বিস্তারিত

Published on:

WhatsApp Group   Join Now

Free Laptop Yojana: ভারতে মতো দেশে প্রায়ই শিক্ষার ক্ষেত্রে অনেক নতুন নতুন পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে, যাতে দেশের শিক্ষার্থীদের শিক্ষার উন্নতি হয়। এই কারণে, অনেক রাজ্য সরকার, যুবক-যুবতীদের শিক্ষার জন্য বিনামূল্যে ল্যাপটপ স্কিম ২০২৪ চালু করার ঘোষণা করেছে। এই প্রকল্পের অধীনে, ১ কোটিরও বেশি শিক্ষার্থীকে ল্যাপটপ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে। যেসব শিক্ষার্থীরা এই প্রকল্পে আবেদন করতে চায় তাদের অবশ্যই কিছু বিষয় মাথায় রাখতে হবে যেমন আবেদনকারীকে অবশ্যই নির্দিষ্ট রাজ্যের বাসিন্দা হতে হবে।

Free Laptop Yojana

পড়ুয়া যদি অষ্টম, নবম, দশম শ্রেণী পাস করে থাকেন বা অধ্যয়ন করেন তবে সে যে কোনও রাজ্যের বিনামূল্যে ল্যাপটপ প্রকল্পের জন্য আবেদন করার যোগ্য বলে বিবেচিত হবে। এছাড়াও যেসব শিক্ষার্থীরা বিনামূল্যে ল্যাপটপ স্কিমের জন্য আবেদন করতে চান, তাদের পারিবারিক আয় ১ লাখের কম হওয়া আবশ্যক এবং শিক্ষার্থীর অভিভাবক সরকারি চাকুরে হলে হবে না। শিক্ষাগত যোগ্যতা হিসেবে শিক্ষার্থীকে যে কোন স্বীকৃত বোর্ডের পরীক্ষায় ৭৫ শতাংশ নাম্বার থাকতে হবে।

সুবিধা : এই প্রকল্প থেকে রাজ্যের পড়ুয়ারা অনেক উপকৃত হবে। এই প্রকল্পের অধীনে নির্বাচিত প্রতিটি ছাত্রের জন্য, রাজ্য সরকার মোটা টাকা দেবে।

Free Laptop Yojana

আরও পড়ুন:e-Shram Card: নতুন করে তৈরি করুন ই-শ্রম কার্ড! লিস্টে নাম থাকেলই মিলবে টাকা

রাজ্যের সুবিধাবঞ্চিত এবং অভাবী ছাত্ররা এখন এই আর্থিক সহায়তার মাধ্যমে বিনামূল্যে লেটেস্ট ল্যাপটপ পাবে৷ ভারতে, ল্যাপটপের দাম সাধারণত ১৫,০০০এবং ২০,০০০ থেকে শুরু হয়। এই সবটাই সাহায্য করবে সরকার।

প্রয়োজনীয় নথি : যেসব শিক্ষার্থীরা এই প্রকল্পে আবেদন করতে চায় তাদের অবশ্যই আধার কার্ড,
মোবাইল নম্বর, পাসপোর্ট – সাইজ এর ছবি, ব্যাঙ্ক পাসবুক, দশম শ্রেণীর মার্কশীট, দ্বাদশ শ্রেণীর মার্কশীট, ঠিকানা প্রমাণ অর্থাৎ বাসিন্দা সার্টিফিকেট এবং আয়ের শংসাপত্র।

Free Laptop Yojana

আবেদন পদ্ধতি : রাজ্যগুলি প্রতিষ্ঠান এবং স্কুলগুলি থেকে আবেদনপত্র গ্রহণ করছে, তাই পড়ুয়াদের নিজেদের স্কুল বা কলেজে গিয়ে বিনামূল্যে ল্যাপটপ স্কিমের জন্য আবেদন করতে হবে। স্কুল বা কলেজ কর্তৃপক্ষ আবেদনপত্র দিলে, এটিতে বিনামূল্যের ল্যাপটপের জন্য আবেদনকারীর বিশদ বিবরণ এবং সমস্ত নথি সংযুক্ত করতে হবে।

তারপর স্কুল কর্তৃপক্ষ আবেদনকারী বিবরণ যাচাই করলে, সরকার আবেদনকারীর নাম সুবিধাভোগী তালিকার অধীনে তালিকাভুক্ত করবে এবং আর্থিক সহায়তার অনুমতি দেবে। শিক্ষার্থীদের মেধা তালিকা ঘোষণার কয়েক মাসের মধ্যে ওই বরাদ্দ টাকা সরাসরি আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে পাঠানো হবে।

About Author
Dikshita Gain

বিগত প্রায় ২ বছর ডিজিটাল মিডিয়ার কাজের সঙ্গে যুক্ত। যে কোনো ধরনের জেনারেল নিউজ লেখায় পারদর্শী।