সিংহ বুড়ো হলেও শিকার করতে ভোলে না, মহম্মদ শামি শেষ ওভারে ৪ বলে ৪ উইকেট নিয়ে যোগ্য জবাব দিলেন সিলেক্টরদের

২০২২ এ অস্ট্রেলিয়ায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে ১৭ই অক্টোবর ভারত এবং অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে একটি প্র্যাকটিস ম্যাচ হয়। সেই ম্যাচে যা ঘটলো তাতে আবার একটি দুর্দান্ত ফিনিসের সাক্ষী হয়ে থাকলো ক্রিকেট বিশ্ব। ম্যাচটি ৩৬০° ঘুরে গেল শেষ ওভারেই। হারা ম্যাচ ভারতীয় দল অস্ট্রেলিয়ার থেকে ছিনিয়ে নিয়ে নিজেদের পকেটে পুড়ে নিল।

ভারতীয় বোলারদের এমন পারফরম্যান্স থাকলে বিশ্বকাপ জিততে আর বেশি অসুবিধা হবে না। ১৭ই অক্টোবর অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে টসে হেরে ভারতীয় দল প্রথমে ব্যাটিং করে ৭ উইকেট এর বিনিময়ে ১৮৬ রান করতে সক্ষম হয়। ভারতের হয়ে লোকেশ রাহুল ৩৩ বলে ৫৭ ও সূর্য কুমার যাদব ৩৩ বলে ৫০ রান করেছেন এবং অস্ট্রেলিয়ার হয়ে কেন রিচার্ডসন চার ওভারে ৩০ রান দিয়ে নিয়েছেন ৪টি উইকেট।

ফর্মে ফিরলো শামি

জবাবে অস্ট্রেলিয়া ব্যাট করতে নেবে ১৮০ রানে অলআউট হয়ে গিয়েছে, যার মূল কৃতিত্বটা যায় ভারতীয় পেস বোলার মহম্মদ শামি ও ভুবনেশ্বর কুমারের উপর। মোঃ শামি এক ওভারে চার রান দিয়ে তিন উইকেট এবং ভুবনেশ্বর কুমার তিন ওভার বল করে কুড়ি রান দিয়ে নিয়েছেন দুটো উইকেট কাছে। এই ম্যাচে দুই অভিজ্ঞ বোলার খাতায় এসেছে পাঁচটি উইকেট। এক বছরের বেশি সময় পর জাতীয় টি-টোয়েন্টি দলের সঙ্গে যুক্ত হয়ে মহম্মদ শামি দেখালেন এই অবিশ্বাস্য পারফরম্যান্স।

বিশ্বকাপের আগে ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার প্র্যাকটিস ম্যাচে অধিনায়ক রোহিত শর্মা মহম্মদ শামিকে শেষ ওভার বোলিং এর জন্য ডাকেন। যেখানে শেষ ওভারে অস্ট্রেলিয়ার জিততে মাত্র ১১ রানের প্রয়োজন ছিল আর হাতে বাকি ছিল ৪টি উইকেট। প্রথম দুটি বলে ২ রান করে নিয়ে ৪ রান যোগ করেন প্যাট কামিনস। কিন্তু পরের চারটে বলের কোন উত্তর ছিল না অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যানদের কাছে।

শামির শেষ চারটি বলের মধ্যে তিনটি বলেই উইকেট নিয়েছেন এবং বাঁকি একটি বলে রান আউট করেছেন। শেষ ওভারের তৃতীয় বলে প্যাট কামিনসকে কোহলির হাতে ক্যাচ আউট করিয়ে প্যাভিলিয়নের পথ দেখান,চতুর্থ বলে রান আউট করেন এস্টোন আগারকে, পঞ্চম এবং শেষ বলে বিষাক্ত ইয়র্কারের জবাব ছিল না জস ইংলিশ এবং কেন রিচার্ডসনের কাছে, দুজনকেই বোল্ড হয়ে ডাগআউটে ফিরে যেতে হয়।