লেটেস্ট খবরসাফল্যের খবর শিক্ষার খবরঅফবিটটেক নিউজ

e-Shram Card: নতুন করে তৈরি করুন ই-শ্রম কার্ড! লিস্টে নাম থাকেলই মিলবে টাকা

Published on:

WhatsApp Group   Join Now

e-Shram Card: দেশের বিভিন্ন শ্রমিকদের উন্নয়নের জন্য এবং তারা যাতে ন্যায্য জীবন যাপনের সুবিধা পায় সেই উদ্দেশ্যে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে বিভিন্ন যোজনা এবং প্রকল্প বিভিন্ন সময় নিয়ে আসা হয়েছে। ভারতের পিছিয়ে থাকা অস্থায়ী শ্রমিক শ্রেণীর যাতে সার্বিকভাবে উন্নত হতে পারে সেই দিকে নজর দিয়ে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার ই শ্রম কার্ডের সুবিধা প্রদান করে আসছে।
সম্প্রতি ২০২৪ সালের ই শ্রম কার্ডের (e-Shram Card) পেমেন্ট লিস্ট প্রকাশ করা হয়েছে।

● ই শ্রম কার্ড কি :

ভারতের শ্রমিক শ্রেণীর সার্বিক উন্নয়নের জন্য ই শ্রম কার্ডের ব্যবস্থা করা হয় কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে। এই কার্ডের গ্রাহক হয়ে থাকলে শ্রমিকরা প্রতিমাসে এক হাজার টাকা পর্যন্ত ভাতা পেতে পারেন। এছাড়াও মিলবে দুই লক্ষ টাকার স্বাস্থ্য বিমার সুবিধা। এমনকি বসবাসের জন্য আবাসনের ব্যবস্থাও করে দেওয়া হবে। এইসবের পাশাপাশি ই শ্রম কার্ডধারী শ্রমিকদের পরিবার সদস্যরাও বিভিন্ন রকম সুবিধা পাবে।

● ই শ্রম কার্ড (e-Shram Card) বানানোর পদ্ধতি :

ই শ্রম কার্ড সম্পূর্ণ অনলাইনের মাধ্যমেই ফিলাপ করা যায়। ই শ্রম কার্ডে আবেদনের জন্য প্রথমে অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে হবে। এরপর নিজের বৈধ মোবাইল নম্বর ও সেই নম্বরে আসা OTP লিখে সহজেই রেজিস্ট্রেশন করে নেওয়া যাবে।

আরও পড়ুন: Pronam Smart Card: স্মার্ট কার্ডের সুবিধা দিচ্ছে সরকার! মিলবে একাধিক সুবিধা! কীভাবে করবেন এই কার্ড? জানুন বিস্তারিত

রেজিস্ট্রেশন এর পরেই স্ক্রিনে আশা ফর্মটি সঠিক তথ্যের সাথে পূরণ করে দিতে হবে। এর পাশাপাশি নিজের আধার কার্ড, ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট নম্বর এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করে সাবমিট বাটনে ক্লিক করতে হবে। এরপর পুনরায় মোবাইল নম্বরে আসা ওটিপির সাহায্যে যাচাই করনের মাধ্যমে নিজের ই শ্রম কার্ডটি ডাউনলোড করে নিতে হবে।

● ই শ্রম কার্ডে পেমেন্ট লিস্ট দেখার পদ্ধতি :

সম্প্রতি ২০২৪ সালের শ্রমকার্ড গ্রাহকদের জন্য নতুন একটি তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। সেই তালিকা অনলাইন মাধ্যমে সম্পূর্ণ দেখার জন্য প্রথমে ই শ্রম কার্ডের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে হবে। এই ওয়েবসাইটের হোমপেজ থেকে E Shram Card New List 2024 অপশনটি বেছে নিতে হবে।

এরপর যে নতুন পেজটি খুলে যাবে সেইখানে নিজের শ্রম কার্ডে দেওয়া মোবাইল নম্বর লিখতে হবে। এর সাথে সাথেই ২০২৪ সালের শ্রম কার্ড গ্রাহকদের নামের একটি তালিকা চলে আসবে। সেখানেই সার্চ করে অথবা নিচে স্ক্রল করে নিজের নামটি খুঁজে নিতে পারবেন।

About Author
Dikshita Gain

বিগত প্রায় ২ বছর ডিজিটাল মিডিয়ার কাজের সঙ্গে যুক্ত। যে কোনো ধরনের জেনারেল নিউজ লেখায় পারদর্শী।